কেন ভুলে যাই আমাদের পরিচয়?- জাকির হোসেন


মুসলিম জাতির বর্তমান প্রজন্মের অনেকেই তাদের অতীত ঐতিহ্য সম্পর্কে জানে না।জানার তাদের আগ্রহও নেই।আগ্রহ থাকলেও জানার তেমন পথ ও পাথেয় নেই।রাষ্ট্রশক্তি হারা মুসলমানরা তাদের অতীত ঐতিহ্য ও জ্ঞান-বিজ্ঞানকে ধরে রাখতে পারেনি।মুসলমানদের জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চা করে অমুসলিম জাতি আজ উন্নত।অন্যদিকে বর্তমান মুসলিম জাতি তাদের পূর্ব পুরুষদের দেয়া জ্ঞান-বিজ্ঞানকে হারিয়ে আজ মূর্খ্য ও পরনির্ভরশীল জাতি।কিন্তু এমন এক সময় ছিল যখন ইরাকের রাজধানী বাগদাদে হাজার বইয়ের সমাহার ছিল আর তখন ইউরোপকে গুটি কয়েক বই নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হত।কিন্তু সেই জাতি নাকি আজ মুসলিম জাতির চেয়ে অনেক অনেক গুন এগিয়ে।কি কারন আমাদের পিছিয়ে যাওয়ার?আবার অমুসলিম জাতির দারা আজ মুসলিম জাতি সবচাইতে বেশি অত্যাচারিত জাতি।অথচ এমন এক সময় ছিল আমদেরকে দেখে রোম-পারস্য কেপে উঠত।কেন আমরা আজ অত্যাচারিত জাতি?এর উত্তর হল আসলে আমরা আমাদেরকে কদর করতে জানি না।ভুলে গেছি আমাদের পরিচয়।পড়ে আছি অমুসলিম জাতির পিছনে।আজকে মিডিয়া সম্পূর্ন অমুসলিমদের দখলে।আমাদের কাছে যেটুকু আছে তা আমরা ব্যবহার করতে জানি না।এর উদাহরনসরূপ বাংলদেশ এর একটি চিত্র তুলে ধরছি আপনাদের সামনে।গত বছর ৮ ই আগষ্ট ও ১২ ই ডিসেম্বর বাংলাদেশের দুইজন বিখ্যাত মুসলিম মুসলিম মনীষী যারা আমাদের ছেড়ে দুনিয়া থেকে বিদায় নেন।তারা হলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক(রঃ) ও বাংলাদেশ এর অন্যতম ধর্মীয় রাহবার মুফতি ফজলুল হক আমিনী(রঃ)।যাদের অবদান ছিল আমাদের জন্য বিশাল পাওয়া।যাদেরকে বাংলাদেশের মুসলমানেরা গ্রহন করেছিল একাধারে ধর্মীয় গুরু,আস্থাবাজন রাজনৈতিক নেতা,প্রতিবাদের সাহসী কন্ঠসর হিসেবে।যারা ছিলেন লং মার্চের সফল নেতা,যাদের কারনে ১৯৯৪ সালে তসলিমা নাসরিনের মত নাস্তিক দেশ থেকে পালাতে বাধ্য হয়েছিল ,যারা ২০০১ এ ফতোয়া বিরুধী আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়েন।ইসলামের জন্য নিজের জানের মায়া ছিল না যাদের।তাদের কন্ঠে এই গর্জন শোনা যেত-আমি কোরআনের জন্য ফাসির মঞ্চে যেতেও প্রস্তুত।কিন্তু তারা যখন আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন মাওলার দরবারে তখন মিডিয়া নিরব আর সে জায়গায় যদি কোন নাস্তিক কিংবা অন্য দেশের কোন বিধর্মী ব্যক্তিত্ত মারা যায় তাহলে মিডিয়ায় প্রচার এর ঢল নেমে যায়।উবায়দুর রহমান নদভী সাহেব ঠিক কথাটিই বলেছেন-“এমপি মন্ত্রী তো এ দেশে নতুন পুরনো মিলিয়ে শত শত আছেন।রাজনৈতিক নেতা আছেন হাজার হাজার।দেশবাসীর উপর তাদের কারো প্রভাব কি আমিনী সাহেবের মত?১৮ দলীয় জূটের কোন নেতা এমপি মন্ত্রীটি এমন আছেন যার জানাজায় ২/৪ লাখ আলেম,উলামা,ইমাম, জানাজা জানা এবং ওযু গোসল করা নামাজি লোক সমবেত হবে।পরহেজগা্‌র,পাক পবিত্র লোকজন বাদই দিলাম-রাজনৈতিক জানাজা আদায়কারী পাচ মিশালী ২-৪ লাখ লোকও কি তাদের বিদায় জানাতে আসবে বলে মনে হয়।নাস্তিক মুরতাদ বামদের কথা আর নাইবা বললাম।জনবিচ্ছিন্ন এসব নেতাদের,দশ পনের জন একদিনে মরলেও শায়খুল হাদিস ও আমিনী সাহেবের সমান বড় জানাজা পাবেন বলে মনে হয় না”।এর পরও এই কথা গুলো মিডিয়াতে প্রচার হয় না।অপরদিকে ইসলাম সম্পর্কিত ছাড়া যদি তাদের কোন বড় বড় ব্যক্তিরা মারা যান তখন তাদের জানাজায় ২/৪ শ বা হাজার মানুষের ঢল দেখা যায়।অথচ মিডিয়ায় তা বিশাল আকারে প্রকাশ করা হয়।এই ভাবে আমরা আমদের কদর দিতে জানিনা।ভুলে যাই আমদের আকাবিরদের।হয়ে যাই অমুসলিমদের মুখাপেক্ষী।কিন্তু আমাদেরও কদর ছিল এক সময়।কেন হব আমরা তদের মুখাপেক্ষী,আমরা কি পারি না আমাদেরকে তেমন করে ফিরে আনতে যেমন ছিল আমদের আকাবিরগন অবশ্যই পারি কারন আমরা হলাম সেই জাতি যারা শাসন করেছে স্পেন,যাদের ভয়ে কেপে উঠত রোম-পারস্য,যাদের জ্ঞান-বিজ্ঞান ছিল অমুসলিমদের চেয়ে অনেক গুন বেশি এগিয়ে।চাই শুধু আমাদের কদর বুঝে প্রতিভাগুলো ব্যবহার করা।ভূলে যেন না যাই আমাদের আসল পরিচয়।এ যুগের জাদুগরদের মোকাবেলায় মূসার আছা হাতে মাঠে নামতে হবে আমাদের।গাফলতের চাদর থেকে জেগে উঠাতে হবে সবাইকে।হে আল্লাহ আমাদের তাওফিক দাও।আমিন

Posted on February 12, 2013, in IJBFBD POST. Bookmark the permalink. Leave a comment.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: